Windows PC

সেরা ১০ টি ওয়েব ব্রাউজার ২০২০।

শেরা ১০ টি ওয়েব ব্রাউজার

আজকে আপনাদের জন্য একটি নতুন ট্রিক নিয়ে হাজির হলাম। আর তাই আপনি যদি ২০২০ সালের সেরা ১০ টি ওয়েব ব্রাউজার খুঁজে থাকেন, তাহলে মনে করেন আপনি সঠিক জায়গাতেই চলে এসেছেন।

আমরা সবাই কম বেশি মোটামুটি কম্পিউটার বা এন্ড্রোয়েড ডিভাইস ব্যাবহার কারি। আর এরকম সবাই ই মোটামুটি জানি ব্রাউজার কি। আর একটি ব্রাউজার দিয়ে কি কাজ করা যায়। একটি ব্রাউজার কতটা গুরুত্বপুর্ন।

মুলত আমাদের ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত হবার জন্য প্রথম দরকার ডাটা বা ইন্টারনেট কানেকশন। আর তারপর দরকার একটি ব্রাউজার। তাই আমরা সবসময় সবকিছুতেই সেরা জিনিসটিকে খুজে থাকি। তাহলে সেরা ১০ টি ওয়েব ব্রাউজার এর মধ্য থেকে ক্যানো নয় একটি।

তাই সেরা ১০ টি ওয়েব ব্রাউজার সম্পর্কে জেনে নেই বিস্তারিত। আর এর মধ্য থেকে একটি বেছে নেই তাহলে আমরা আমাদের জন্য। আশা করি পুরো পোস্ট টি আপনি মনজোগ সহকারে পড়বেন।

সেরা ১০ টি ওয়েব ব্রাউজার।

1. Google Chrome

বোলতে গেলে বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও সহজলভ্য ব্রাউজার হলো Google Chrome। এটি প্রায় আপনার আমার সকলের পরিচিত একটি ব্রাউজার।

এটি গুগল কম্পানির নিজস্ব তৈরি একটি ব্রাউজারট। এই ব্রাউজার টি প্রথম রিলিজ করা হয় ২০০৮ সালের ২য় সেপ্টেম্বর। তারপর থেকেই এটি খুব দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে ওঠে সবার নিকট।

বর্তমান সময়ে গুগল ক্রোম ব্রাউজার টি সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত ওয়েব ব্রাউজার। আর এটির অপশন গুলিও খুব সহজ আর ব্যাবহারের ক্ষেত্রেও এটি খুব সহজসাথ্য।

অন্যান্য সকল ওয়েব ব্রাউজারের মতো এতেও বুকমার্ক ম্যানেজমেন্ট, এক্সটেনশান, থিম, কাস্টম থীম ও বর্তমান আপডেট ভার্সনে নাইট মোড সহ সকল বেসিক ফিচার্সই রয়েছে।

তবে ২০২০ সালে আপডেট ভার্সন রিলিজের সাথে গুগল কম্পানি ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত আরো জোরদার করেছে তাছাড়া আরো অনেকগুলো নতুন ফিচার্স ও যুক্ত করেছে।

এই গুগল ক্রোম ব্রাউজার টি উইন্ডোজ, লিনাস্ক, ম্যাক ও এস, এন্ড্রোয়েড, আই ও এস, সহ সকল ডিভাইসের জন্য ফ্রিতেই পাওয়া যাবে।

ডাউনলোড ক্রোম

2. Mozilla Firefox

গুগল ক্রোমের পরেই বর্তমান সময়ের আলোচিত আরেকটি সেরা ওয়েব ব্রাউজার হলো মোজিলা ফায়ারফস্ক (Mozilla Firefox)। বর্তমানে এটির স্থান গুগল ক্রোমের পরেই। এটিও সকলের কাছে পরিচিত ও জনপ্রিয় আরেকটি ওয়েব ব্রাউজার।

এটিও একটি ফ্রি ওয়েব ব্রাউজার। এই ওয়েব ব্রাউজার মজিলা ফায়ারফক্সকে তৈরি করেছে মোজিলা ফাউন্ডেশন এবং এর অধীনস্ত মোজিলা কর্পোরেশন।

এটি ২৩ শে সেপ্টেম্বর ২০০২ সালে প্রথম উন্মুক্ত করা হয়। বর্তমানে মজিলা ফায়ারফক্স কম্পিউটার ব্যাবহারকারিদের কাছে গুগল ক্রোমের পরের অবস্থানেই আছে। ফায়ারফস্ক ওয়েব ব্রাউজারটি ৯০ টি দেশের বেশি ভাষা সাপোর্ট করে।

এই ব্রাউজারটিতেও গুগল ক্রমের মত বুকমার্ক ম্যানেজমেন্ট, এক্সটেনশন, থিম, জাভাস্কিপ্ট কোড সহ সকল বেসিক ফিচার্স ই রয়েছে।

এই ব্রাউজার টিতেও ব্যাবহারকারির নিরাপত্তা দিক থেকে অত্যন্ত গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। বিশেষ ফিচার হিসেবে এতে ইন-ব্রাউজার ক্রিপ্টোমাইনিং ব্লকিং, ট্রাকিং প্রটেকশন রয়েছে।

ব্রাউজার টি গুগল ক্রোমের মত সকল ডিভাইসের জন্য ফ্রিতেই পাওয়া যাবে।

ডাউনলোড মজিলা

3. Microsoft Edge

আপনি যদি আপনার কম্পিউটারে উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে অবশ্যই Microsoft Edge এর সাথে বেশ ভালোভাবেই পরিচিত হবেন। কারন এটি উইন্ডোজ ১০ এর জন্য মাইক্রোসফট কম্পানির তৈরি করা উইন্ডোজ ১০ এর জন্য ডিফল্ট ব্রাউজার। মাইক্রোসফট কম্পানি মূলত ইন্টারনেট এক্সপ্লোয়ারের হারানো সম্মানটা আবার ফিরে পেতেই এটি রিলিজ করে বলতে পারেন।

এই ব্রাউজারটির ব্রাউজিং স্পিড এবং ফিচার্স গুলোর দিকগুলো যদি বিবেচনা করতে যান তাহলে আপনি নিসন্দেহে বলবেন এটি সেরা ব্রাউজারগুলোর মধ্য থেকে একটি। আপনি যদি কিছু সময়ের জন্য এই ব্রাউজারটি ব্যবহার করে থাকেন, তাহলে এতে থাকা ফিচারগুলো দেখে আপনি হয়তো এই ব্রাউজার টির ফিচার্স গুলোর জন্য এটি আপনার কাছে ভালো লাগে এটা বলতে পারবেন।

তাছাড়া এই ব্রাউজার টি উইন্ডোজ ১০ এর ডিফল্ট ব্রাউজার হিসেবে দেয়ায় অন্যান্য ব্রাউজারগুলোর চেয়ে উইন্ডোজ ১০ এর সেটিংসের সাথে এই ব্রাউজারটির একটি গভির সম্পর্ক রয়েছে। তাই এটি উইন্ডোজ ১০ এর সাথে অন্যান্ন ব্রাউজার গুলোর তুলনায় ব্রাউজারটির আরো অনেক অ্যাডভান্স ফিচার্স রয়েছে যেগুলো অন্যান্য ব্রাউজাগুলোর মধ্যে নেই।

ব্রাউজার টি উইন্ডোজ ১০, আই ও এস এবং এন্ড্রোয়েড এর জন্য এভাইলেবল।

ডাউনলোড মাইক্রোসফট

4. Brave Browser

এবার চলুন একটু ভিন্ন রকমের ব্রাউজার সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক। আপনি যদি ইন্টারনেটে প্রাউভেসি নিয়ে খুব বেশি চিন্তিত থাকেন। তাহলে আমি বলবো আপনার জন্য উপযুক্ত ওয়েব ব্রাউজার হলো ব্রেভ ব্রাউজার (Brave Browser)।

আর ব্রেভ ব্রাউজার কে বলা হয় সুপার প্রাইভেসি ফোকাছড ক্রোমিয়াম ব্রাউজার। মজিলার প্রাক্তন সিইও ব্রান্ডন আইক এই ব্রাউজার টি তৈরু করেছিলেন। আর প্রাইভেসির দিক থেকে খুব কম সময়ে ব্রাউজারটি খুব জনপ্রিয়তা অর্জন করে ফেলেছে।

প্রাইভেসি ফোকাছড ক্রোমিয়াম নির্ভর ব্রেভ ব্রাউজার এ গুগল ক্রোমের প্রায় সব ফিচারস এবং এক্সটেনশন গুলী সাপোর্ট করে। আর তাছাড়া ব্রেভ ব্রাউজারটি গুগল ক্রোমের চেয়ে দ্রুত ওয়েব সাইট লোড করতেও সক্ষম হয়।

একজন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীকে ভালো একটি ব্রাউজিং অভিজ্ঞতা দেওয়ার লক্ষ্যে ব্রাউজরাটিতে অ্যাড ব্লকার এবং পাশাপাশি ট্র্যাকার, জাভাস্ক্রিপ্ট এবং থার্ড পার্টি কুকিজ ব্লকারও সুবিধাও রয়েছে।

ব্রাউজার টি উইন্ডোজ, ম্যাকওস, লিনাক্স, অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস এর জন্য পাওয়া যাবে।

ব্রেভ ব্রাউজার

5. Opera

অপেরা আমাদের খুবি জনপ্রিয় একটি ব্রাউজার। প্রায় ২৫ বছর আগে, ১৯৯৫ সালের এপ্রিলে এটি প্রথম রিলিজ করা হয়েছিল। কম ডেটা খরচের জন্য এটি একটি কার্যকরি ব্রাউজার।

অপেরা ব্রাউজার টি গুগল ক্রোমের আপডেটের পর ক্রোমের সাফল্যের কারণে, অপেরার জনপ্রিয়তা হ্রাস পেলেও অপেরা আবার নিজেকে ফিরিয়ে এনেছে সম্পুর্ন নতুনভাবে। বর্তমানে এর নতুন সংরক্ষনে অনেকগুলো চমৎকার ফিচার এড করা হয়েছে। যা এই ব্রাউজার টিকে অন্যতম সেরা একটি ব্রাউজারে পরিণত করেছে।

এই ওয়েব ব্রাউজারটিতে সচরাচর বেসিক ফিচারগুলোর পাশাপাশি নতুন করে ফিশিং-ম্যালওয়্যার প্রটেকশন, ডাটা সেভিং মোড, বিল্ট-ইন অ্যাড-ব্লকার, স্ক্রিনশট টুল সহ আরো অনেক ফিচার রয়েছে।

তবে ব্রাউজারটিতে থাকা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি ফিচার হলো অপেরা টার্বো ফিচার, যা ব্যবহারকরীর ওয়েব ট্র্যাফিক কমপ্রেস করে আর কম ব্যান্ডউইথ ও ডেটা ব্যবহারে সাহায্য করে।

তবে আপনি জেনে খুশি হবেন যে অপেরা ব্রাউজার টির জন্য বর্তমানে প্রায় ১ হাজারের ও বেশি এস্কটেনশন এভাইলেবল রয়েছে। আরো খুসির খবর হলো বর্তমানে অপেরা ব্রাউজার টিতে গুগল ক্রোমের সব এস্কটেনশন গুলোই ইনস্টল করা যায়। আর ব্রাউজার টি বর্তমানে ক্রোমের মতই একই ইঞ্জিন ব্যাবহার শুরু করেছে।

ব্রাউজার টি উইন্ডোজ, ম্যাক ও এস, লিনাক্স, অ্যান্ড্রয়েড, আই ও এস এবং বেসিক সকল ফোনের জন্য পাওয়া যায়।

অপেরা ডাউনলোড

 

6. Vivaldi

চলুন একটু ভিন্ন রকমের ব্রাউজার সম্পর্কে জেনে নেই। এই ব্রাইজারটির নাম ভিভালদি (Vivaldi)। ব্রাউজার টি একটি হাইলি কাস্টমাইজেবল ব্রাউজার। প্রায় ৪ বছর আগে এই ব্রাউজার টি রিলিজ হয়। আর ইতোমধ্যেই ২০২০ সালের অন্যতম একটি সেরা ব্রাউজার হিসেবে অবস্থান করে নিয়েছে এটি।

এই ব্রাউজার টি তৈরি করেছেন অপেরা সফটওয়্যারের সহকারি প্রতিষ্ঠাতা জন স্টিফেন্স ভন এবং তাতসুকি টমিটা। এটি কিছুটা অপেরার মত দেখতে কিন্তু এর কাস্টমাইজড সুবিধা অপেরা ব্রাউজার থেকে অনেক বেশি।

আপনি চাইলে ব্রাউজারটির এড্রেস বার, ট্যাব বার সহ সব নিজের ইচ্ছেমত কাস্টমাইজড করে নিতে পারবেন।

আর ব্রাউজার টি যেহেতু ক্রোমিয়াম নির্ভর সেহেতু এতে অপেরার মত গুগল ক্রোমের সব এস্কটেনশন সাপোর্ট করে প্লাস ক্রোমের সকল ফিচার্স গুলো এতে পাওয়া যাবে।

উইন্ডোজ, ম্যাক ও এস এবং লিনাক্স সকল ডিভাইসের জন্য পাওয়া যাবে।

ভিভালদি ডাউনলোড

7. Torch Browser

এখন যে ব্রাউজারটির কথা বলবো, হয়তো এই ব্রাউজার টি গুগলের ক্রোম, মোজিলা ফায়ারফক্স বা অপেরার মতো অতটা জনপ্রিয় একটি ব্রাউজার নয়, তবে এটা উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের জন্য ক্রোমিয়াম নির্ভর ব্রাউজার হিসেবে এটি সেরা ব্রাউজারগুলোর তালিকাতে অন্যতম একটি জায়গা পাওয়ার যোগ্য। এর কারণ এটির অন্যতম ফিচার্সগুলো। চলুন একনজর দেখে নেয়া যাক এর কিছু ফিচার্স সম্পর্কে।

ধরুন আপনি যদি একজন BitTorrent (ডার্ক ওয়েব) ওয়ার্ল্ডের ফ্যান হয়ে থাকেন তাহলে Torch ব্রাউজারটি শুধু আপনার জন্যই। আর এটি হয়ত আপনি আরেকটু রিসোর্স করলেই পেয়ে যাবেন। প্র‍য়োজনে গুগল থেকে আরো বিস্তারিত জানতে পারবেন।

আর এই ব্রাউজারটিতে আছে বিল্ট-ইন টরেন্ট ডাউনলোডার, যেটির সাহায্যে আপনি টরেন্ট (ডার্ক ওয়েব) সাইটগুলো হতে খুব সহজেই আপনার দরকারী ফাইলগুলো ডাউনলোড করে নিতে পারবেন, কোনো প্রকার ঝামেলা ছাড়াই।

তাছাড়া এই ব্রাউজারটিতে মিডিয়া গ্রেভার নামে একটি অসাধারন ফিচার্স রয়েছে। যার সাহায্যে আপনি স্ট্রিমিং ওয়েব সাইটগুলো হতে লাইভ ভিডিও এবং অডিও এর ফাইলগূলো ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

এইসবগুলো ছাড়াও আরো বেশ কয়েকটি আকর্ষণীয় ফিচার্স আছে এই ব্রাউজারটিতে। যেহেতু এটি একটি ক্রোমিয়াম নির্ভর ব্রাউজার, তাই ব্রাউজারটির ইউজার ইন্টারফেস গুগল ক্রোমের মতোই এবং এতে গুগল ক্রোমের সব ফিচার্স গুলোই রয়েছে।

এই ব্রাউজার টি উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের জন্য পাওয়া যাবে।

Torch ব্রাউজার

 

8. UC Browser

UC Browser সেরা ব্রাউজার এর মধ্যে একটি এটা নিশ্চিন্তে বলা যায়। আর আমরা যারা এন্ড্রোয়্রড ডিভাইস ব্যাবহার করি আশা করি এটি সবার মন কাড়া একটি সেরা ব্রাউজার। তাছাড়া এই ব্রাউজার টি এন্ড্রোয়েড এর পাশাপাশি উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম সব প্রায় সব অপারেটিং সিস্টেমের জন্য উন্মুক্ত।

এছাড়াও এই ব্রাউজারটির অনেক সুবিধা রয়েছে আর অন্যান্ন ব্রাউজার এর তুলনার একটু ফাস্ট কাজ করে যার কারনে এটা অনেকের কাছেই পছন্দের প্রথম সারিতে থাকে। তাছাড়াও এটি অন্যান্ন ব্রাউজারের মত ক্রোমিয়াম নির্ভর একটি ব্রাউজার।

এটার ইউজার ইন্টারফেস আপনার অবশ্যই ভালো লাগার কথা কারন এর ইন্টারফেসগুলি অন্যান্ন ব্রাউজার গুলির মত সমান ভাবেই আকর্ষনীয় সুন্দর।

এছাড়াও এটিতে বিল্ড ইন ভাবে দেয়া রয়েছে এড ব্লকার, পাসওয়ার্ড ম্যানেজার, স্পিড বুস্টার, ডে-নাইট মুড সহ ভিডিও এবং অডিও গ্রেভারের মত সব অসাধারন ফিচার্সগুলি।

আরো রয়েছে অন্নান্য ব্রাউজারের মত ট্যাব, বুকমার্ক, এস্কটেনশন, ডেফল্ট ও কাস্টম থীম সহ প্রায় সব সুবিধাগুলোই রয়েছে।

ব্রাউজার টি উইন্ডোজ, অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস, জাভা সহ সব অপারেটিং সিস্টেম গুলোর জন্য উন্মুক্ত।

ইউসি ব্রাউজার

9. Maxthon

সর্ব প্রথম ২০০২ সালে প্রাথমিকভাবে রিলিজ হওয়া ম্যাক্সথন শুধু উইন্ডোজের জন্য এভেলেবেল করা হলেও পরবর্তীতে এটিকে অন্যান্য প্ল্যাটফর্মগুলোর জন্যও রিলিজ করে দেওয়া হয়।

তবে ডেভেলপারগণ এটিকে একটি ক্লাউড ব্রাউজার হিসাবে দাবি করেন আর প্রমোট করে থাকেন। তবে, আমার মতে এটি কোন নতুন ফিচার্স নয়। তবে এই কথা সত্য যে এটি একটি অত্যন্ত ফাস্ট স্পিডের একটি ব্রাউজার। আর এর প্রধান কারন হল এটা দুটি রেন্ডারিং ইঞ্জিন, ওয়েবকিট ও ট্রাইডেন্ট ব্যাবহার করে থাকে বলে।

এটাতেও UC Browser এর মত কিছু বিল্ট-ইন অপশন রয়েছে যা আপনার ভালো লাগবেই। যেমন অ্যাড ব্লক প্লাস, নাইট মোড, স্ক্রিনশট টুল, ইমেল ক্লায়েন্ট, পাসওয়ার্ড ম্যানেজার, ভিডিও ক্যাপচার টুল, নোট টেকিং টুল ইত্যাদি সহ আরো অনেক ফিচার্স। আপনি এটিকে ফায়ারফস্ক এর বিকল্প হিসেবে ব্যাবহার করতে পারেন।

ব্রাউজার টি উইন্ডোজ, ম্যাক ও স, লিনাক্স, অ্যান্ড্রয়েড, আই ও এস এবং উইন্ডোজ ফোন গুলোতে ব্যাবহারের জন্য উন্মুক্ত

ম্যাক্সথন ব্রাউজার

10. Safari

Safari ব্রাউজার টি গুগল ক্রোম ও মোজিলা ফায়ারফক্সের সবচেয়ে বিকল্প ব্রাউজার হতে পারতো, যদি এটিকে অ্যাপল, উইন্ডোজ প্ল্যাটফর্মে ব্যান না করা হতো।

কয়েক বছর আগে সাফারি ব্রাউজার উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম প্ল্যাটফর্মের জন্য এভাইলেবল ছিল, কিন্তু পরবর্তীতে অ্যাপল তা বন্ধ করে দেয়।

বর্তমানে এটি শুধু ম্যাক ও এস এবং আই ও এস সিস্টেমে ব্যবহার করা যায়। আপনি যদি অ্যাপেলের ফ্যানবয় হয়ে থাকেন বা ম্যাক ও এস/আই ও এস এর ব্যবহারকারী হয়ে থাকেন, তাহলে এই ওয়েব ব্রাউজারটি আপনার জন্যই। ব্রাউজার টি অ্যাপল ডিভাইসের জন্য একটি ডেফল্ট ব্রাউজার। অন্যান্য ব্রাউজারগুলোর মতো এতেও এক্সটেনশান ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।

অ্যাপল ডিভাইস প্রতিষ্ঠার দাবি সাফারি ম্যাক ও এস এ অন্যান্য ব্রাউজারের তুলনায় জাভা স্ক্রিপ্ট লোড করতে সক্ষম হয় ৩.২ গুণ বেশি ফাস্ট এবং উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের অন্যান্য ব্রাউজারের তুলনায় জাভা স্ক্রিপ্ট লোড করতে সক্ষম ৩.৭ গুণ বেশি ফাস্ট।

ম্যাক ও এসস এবং আইওএস প্লাটফর্ম এর জন্য এটি পাওয়া যাবে।

সাফারি ব্রাউজার

পোস্টটি সেরা ১০ টি ওয়েব ব্রাউজার নিয়ে অনেক কস্ট করে লিখলাম, লেখার ভিতরে টাইপ মিস্টেক হলে প্লিজ ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন, আশা করি এই পোস্টটি দ্বারা আপনার উপকার হবে আর এই ব্লগ পোস্টটির দ্বারা যদি আপনার কোন উপকার হয়ে থাকে তাহলেই সার্থক।

আমাদের সাথেই থাকবেন, সবাইকে অনেক ধন্যবাদ। সবাই ভালো থাকবেন।

1 Comment

1 Comment

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    To Top