Host & Domain Info

ওয়েবসাইটের জন্য ডোমেইন কেনো প্রয়োজন।(Domain)

"<yoastmark

আমারা প্রায় অধিকাংশই আছি যারা ডোমেইন (Domain) টা আশলে কি এবং এটার সম্পকে বুজি কিন্তু হয়তো অল্প সংখ্যক কিছু মানুষ আছে যারা বুজে না। যে একটি Domain এর কাজ কি এবং এটি কিভাবে কাজ করে।

প্রথমেই ইচ্ছেঘুড়ি ব্লগ এর পক্ষ থেকে সবাইকে জানাই আন্তরিক সালাম ও শুভেচ্ছা.. আশা করি সবাই ভালো আছেন আর আমরাও চাই আপনারা সবাই ভালো থাকুন….।

চলুন আমাদের মুল টপিকে আশা যাক।

আবার যারা একটি Domain বোলতে শুধু একটি ওয়েব বা ব্লগকে বুঝি আশলে ব্যাপার টি কিন্তু তা না। ডোমেইন হলো একটি ওয়েব বা ব্লগ এর একটি নির্দিষ্ট ঠিকানা, একটা এস্কটেনশন।চলুন নিচে এর সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

আর আপনি যদি এই ব্যাপারে যানতে ইচ্ছুক থাকেন তাহলে আমি আশা করি আপনি সম্পুর্ন টিউন টি মনোযোগ দিয়ে পড়বেন।

ডোমেইন (Domain) কি মূলত…?

Domain হলো একটি ওয়েবসাইটের নির্দিষ্ট ঠিকানা। যেমনঃ- www.IccheGhuri.Com এটি আমাদের ওয়েব সাইটের লিংক, এই লিংক টায় আমি ৩ টা কালার করেছি কারন একটি ডোমেইনের পার্ট বা ভাগ ৩ টা তাই দেখুন বিস্তারিত নিচে লেখা আছে।।  এখানে www হলো world wide web আর IccheGhuri এটা হলো ডোমেইন এর নাম আর ডট কম (.Com) এটা হলো এক্সটেনশন

শুধু ডট কম না আরো অনেক প্রকার এস্কটেনশন পাওয়া যায় তার ভিতরে ডট কম,ডট নেট,ডট ও আর জি, ডট কম ডট বিডি, ডট ইডু (.com, .net,. org, .com.bd, .edu) আরো অনেক এস্কটেনশন আছে কিন্তু আমি অত গুলো উল্লেখ করলাম না আমি শুধু পপুলার গুলোর কথা উল্লেখ করলাম আপনাদের বুঝানোর সুবিধার্থে।

ডোমেইন (Domain) কাকে বলে?

Domain হলো আলফামেরিক একটি ঠিকানা যার মাধ্যমে কোন একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটকে সহজে খুজে পাওয়া যায়।ডোমেইন সম্পকে আরেকটু সহজ করে যদি বলি তাহলে আপনাদের একটু বুজতে সুবিধা হবে।

যেমনঃ- ধরুন আপনি একটি বাড়ি বানালেন এখন আপনার বাড়িটি আপনি চিনেন কিন্তু আমি চিনিনা এখন আপনি যখন আপনার বাড়ির নির্দিষ্ট ঠিকানাটা আমাদে দিবেন তখন কিন্তু আমি ঠিকি চিনতে পারবো আপনার বাড়ি।

আর আপনি যখন বাড়িটি বানাবেন তখন আপনার গ্রাম বা এলাকার একটা নাম থাকবে আর এই এলাকার নামের মতই হলো এস্কটেনশন টা আশা করি আমি আপনাকে বুঝাতে পেরেছি।

এখন ঠিক আপনার বাসায় আমি বা কোনো মেহমান আশতে গেলে আপনার বাসার নির্দিষ্ট ঠিকানা ছাড়া যেমন আমি বা কেউ আসতে পারবে না তেমন একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইটের একটি নির্দিষ্ট ডোমেইন ছাড়া কেউ আপনার বা কোনো নির্দিষ্ট ওয়েব সাইটে যেতে পারবে না।

আর Domain হলো এমন একটি ঠিকানা যার মাধ্যমে একজন ব্যবহারকরী সহজে একটি নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে ডুকতে পারে।

ডোমেইন কেন প্রায়োজন…?

প্রত্যেকটি ওয়েসবসাইট এর জন্য এটি একটি  গুরুত্বপূর্ণ অংশ। কারন একটি ওয়েবসাইট বা ব্লগের যদি ডোমেইন বা নির্দিষ্ট ঠিকানা না থাকে তাহলে আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগ টি কেউ খুজে পাবে না আর চিনবেও না। তাই আপনার ওয়েবসাইটের জন্য এটি অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন।

আর একটি ওয়েবসাইট এ আইপি অড্রেস এর মাধ্যমেও ব্রাউজ করা যেতে পারে কিন্তু এই আইপি অড্রেস ১৫-১৬ ডিজেট হয়ে থাকে যা একজন ব্যবহারকারী কাছে খুবি কষ্টের আর কঠিন । আর তাই  Domain এর এই বড় আইপি টিই কিন্তু মুলত ডোমেইন হিসেবে ছোট নামে প্রাকাশিত করে ফলে আপনার ওই ওয়েবসাইট টিতে প্রবেশ করতে ও খুজে পেতে সহজ হয়।

মোট কথা একটি ওয়েবসাইট কে প্রকাশ কোরতে গেলে অবশ্যই দরকার হবে একটি ডোমেইন আশা করি কিছুটা বুঝতে পারছেন।

ডোমেইন (Domain) ধরণ ও দাম….?

ডোমেইন এর মধ্যে অনেক ধরনের এস্কটেনশন যুক্ত ডোমেইন (Domain) রয়েছে যা আমি উপ্রে ডোমেইন মুলত কি এই প্যারায় আলোচনা করেছিলাম। তারপরেও এখানে একটু বলা দরকার।আমারা বিভিন্ন ধরনের এস্কটেনশন যুক্ত ডোমেইন পাবো মার্কেটে প্রভাইডারদের কাছে।

কিন্তু তার ভিতরে কিছু টপ লেভেল এর  Domain আছে যেগুলো আমরা সচরাচর বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকি যেমন- ডট কম, ডট নেট, ডট অরগ, ডট ইডু, ডট টেক, ডট ইনফো (.com,.net,.org,.edu,.tech,.info) ইত্যাদি। আবার কিছু ফ্রি Domain ও পাওয়া যায় ডট টিকে,ডট এম এল, ডট সি এফ (.tk, .ml, .cf) সহো আরো কিছু আছে।

আরো একটি ডোমেইন আছে ডট কম ডট বিডি, (.Com.bd) ডোমেইন (Domain) যা বাংলাদেশ বিটিসিএল ( BTCL ) এর ওয়েবসাইট থেকে ২ বছরের জন্য নিবন্ধন করতে হয়।

আপনারা উপ্রে আলোচনা করা টপ লেভেল সহো যেকোনো এস্কটেনশন যুক্ত Domain গুলি ১বছর এর জন্য ৮০০-৯০০ টাকা দিয়ে কিনতে পারবেন। আর প্রতি বছর ই এই ডোমেইন গুলো সমপরিমান মুল্যে রিনিউ করে নিতে হবে। আর নির্দিষ্ট তারিখের ভিতর রিনিউ না কোরলে হারাতে হবে আপনার ডোমেইন টি।

এখানে আরেকটু কথা আছে এই টপ ডোমেইন (Domain) গুলোর মধ্যে আমরা সবাই ডট কম (.Com) টা ই প্রাধান্য দিয়ে থাকি বেশি। আর আমাদের দেশে অনেক প্রভাইডার আছে তাছাড়া অনেক বড় বড় কোম্পানি গুলোও কোনো কোনো কারনে বিভিন্ন সময় অফার দিয়ে থাকে।যেমন ডট কম (.Com) প্রথম বছর রেজিস্টেশন ৩৫০-৪৫০ টাকার মধ্যে।

তারপর GoDaddy কম্পানিও একি কাজ করে যেমম প্রথম বছর ডোমেইন রেজিস্টেশন এ টাকা কম কাটে।

আর এই অফারে কেনা ডোমেইন গুলো আশলে কিছুটা ঝুকিতে থাকে যেমন যেকোনো সময় সাসপেন্ড কোরতে পারে তারপর ডি এন এস (DNS) আপডেটে সময় বেশি নেয়। তারপর রিসেলার হোস্ট এর পার্সোনাল সার্ভার সেটাপে সমস্যা,আসলে আমাদের মুল উদ্দ্যেশ্য সার্ভার সেটাপ না অইটা অন্য কোনো পোস্ট এ আলোচনা কোরবো। তাই বলি একটু জাচাই বাচাই করে  এটা কিনবেন। আর এ ব্যাপারে আরো জানতে চাইলে অবশ্যই আমাকে জানাতে পারেন।

তবে ডট কম ডট বিডি (.Com.bd) টি শুধু বাংলাদেশ BTCL এর অফিস থেকে ২ বছরের কমে কিনতে পারবেন না। হয় তা প্রতি বছর রিনিউ করতে হয়।

আর ফ্রি গুলো কোন টাক লাগে না কিন্তু এসব ফ্রি ডোমেন যেকোন সময় সাসপেন করে দিতে পারে কোনো ভরসা নাই আর তাছাডা রেজিস্টেশনেও মাঝে মাঝ্র ঝামেলা করে।

Domain এর প্রকার ভেদ ও ব্যাবহার সম্পর্কে একটু জানি…!

টিএলডি= টপ লেভেল ডোমেইন ( Top Level Domain = TLD)

টপ লেভেল ডোমেইন বলতে আমরা সচরাচত হাতে গোনা কয়েকটি এস্কটেনশন দেখি।যেমনঃ .com, .org, .edu, .gov, .info, .net, ইত্যাদি। সাধারনত কোনো কাজ বা ব্যবসায়ীক ওয়েব, সাংগঠনিক ওয়েব বা ব্লগ,, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ওয়েব, রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান এর ওয়েব, ইনফরমেশন ও নেটওয়ার্কিং ব্লগ তারপর পার্সোনাল ওয়েবসাইটের জন্য এগুলো সর্বোচ্চ টপ লেভেল এর Domain হিসেবে ব্যবহার করা করে থাকেন।

জিটিএলডি= জেনারিক টপ লেভেল ডোমেইন (Generic Top Level Domain = gTLD)

TLD গুলোর মধ্যে যেই ডোমেইন (Domain) গুলা কোন দেশের সাথে সংশ্লিষ্ট না তাদেরকে gTLD বলে। .com, .org, .edu, .gov, .info, .net,  ইত্যাদি কিছু সংখ্যক ডোমেইন হলো জেনারিক টপ লেভেল ডোমেইন (gTLD)

ওএসএলডি = সাব লেভেল ডোমেইন (Sub Level Domain = oSLD)

ডোমেইন (Domain) নাম এর আগে কিছু থাকলে তাকে সাব লেভেল ডোমেইন (Sub Level Domain) বলে। যেমন- blog.uthso.comএখানে blog. হচ্ছে সাব লেভেল ডোমেইন (Sub Level Domain) । একটা Domain এ একাধিক সাব লেভেল ডোমেইন (Sub Level Domain) থাকতে পারে এটা অই ডোমেইনের মালিক বা ওয়েবসাইট এর মালিকের ইচ্ছা বা যত প্র‍য়োজন পড়ে।

সিসিটিএলডি = কান্টি কোড টপ লেভেল ডোমেইন (Country Code Top Level Domain = ccTLD)

কান্টি কোড টপ লেভেল ডোমেইন (Country Code Top Level Domain = ccTLD) বলতে আমরা জানি বিভিন্ন দেশের নামে নিজস্ব যেই ডোমেইন গুলো থাকে আসলে সেগুলকেই কান্টি কোড টপ লেভেল ডোমেইন (Country Code Top Level Domain = ccTLD) বলা হয়। কিছু উদাহরন দিচ্ছি যেমনঃ- .us (America) .uk (United Kingdom) .au(Australia) .bd(Bangladesh), .bangla(Bangladesh) সহো আরো অনেক।

কিভাবে এবং কোথা থেকে এটা কিনবেন…..?

টপ লেভেল সহ প্রায় সব এস্কটেনশন গুলী যে কেউ যে কোনো মুহুর্তে যেকোনো যায়গায় বসে কাংখিত ডোমেইন টি কিনে নেয়া যায়। বাইরের কোনো কম্পানি থেকে যদি কিনতে যান তাহলে আপনার প্রয়োজন হবে একটি ইন্টারন্যাশনাল মাস্টার বা ক্রেডিট কার্ড বা ডুয়েল কারেন্সি ক্রেডিট কার্ড। আর যদি আপনার এটা না থাকে তাহলে আমাদের বাংলাদেশে অনেক প্রভাইডার আছে যারা আপনার ডোমেইন টি যত্ন সহকারে কিনে দিতে প্রস্তত মানে তারা নিজেরাই এটা প্রভাইড করে।

আর আমি মনে করি আপনার ফালতু ঝামেলায় না জড়িয়ে বাংলাদেশি প্রভাইডার দের কাছ থেকে কিনে নেয়াটাই ভালো। কারন যেকোনো সমস্যায় তাদের আপনি জানাতে পারবেন আর সাপোর্ট ও ভালো। তবে বাংলাদশের সব প্রভাইডার দের সাপোর্ট যে ভালো আমি সেটা বলবো না তাই নেবার আগে অবশ্যই একটু জাচাই বাচাই করে নিবেন। কারন আমি নিজেও এই ব্যাপার টায় একটা সময় অনেক ভোহান্তি পোহাতে হয়েছে।

আর অনেক কম্পানি অনেক রকম ডোমেইন এর সি প্যানেল প্রদান করে থাকে। তবে কেনার পুর্বে প্রয়োজন হয় জেনে নিন তারা সম্পুর্ন সি প্যানেল আপনাকে দিবে কিনা আর ডোমেইন টি অবশ্যই পাবলিক ডোমেইন রেজিস্টারি (PublicDomainRegistry = PDR) নাকি অন্য এটা জেনে নিন কারন পাবলিক ডোমেইন রেজিস্টারি (PublicDomainRegistry = PDR) এর সি প্যানেল টা সহস ও সিকুরিটি ভালো তবে অফারের Domain গুলি মনে হয়না PDR প্রদত্ত হবে। এটা অবশ্যই মাথায় রাখবেন।

প্রয়োজনে আমাদের কাছ থেকে জেনে নিবেন কোথা থেকে Domain কিনবেন আশা করি সঠিক তথ্য দিয়ে সহায়তা করার চেস্টা করবো।

ডোমেইন নাম কেমন হওয়া উচিত?

আপনি শুরুতে আগে নির্বাচন করুন আপনি কি ধরনের ওয়েবসাইটের জন্য এটি কিনতে চাচ্ছেন। যদি আপনি কোনো প্রতিষ্ঠান এর ওয়েবসাইটের জন্য এটি (Domain) খুজে থাকেন তাহলে আপনি প্রথমে আপনার প্রতিষ্টানের সাথে মিল রেখে একটি নাম বাছাই করুন আর নাম Domain নাম নির্বাচন করার জন্য নিচে উল্লেখ করা বিষয় গুলো ফলো করতে পারেন।

আপনার কম্পানির নাম নির্বাচন করার পর আপনার প্রতিষ্ঠানের কার্যকালাপের সাথে মিল রেখে এস্কটেনশন বাছাই করুন।

যেমনঃ আপনার ওয়েবসাইট টি যদি ব্যাবসায়িক হয় তাহলে ডট কম (.com) আবার কোনো সংগঠন এর ওয়েবসাইট হলে(.org) সরকারী কোনো তথ্য হলে(.gov) আর টেকনোলজি সম্বলিত কোনো ওয়েবসাইট হলে (.Tech) এভাবেই কম্পানি আর কার্যকলাপের উপর ভিত্তি করে এস্কটেনশন নির্বাচন করুন ।

নেম বাছাই কেমন হওয়া উচিৎ…?

আপনি আপনার টার্গেট করা কম্পানি, ব্লগ, সংগঠন বা যেকোনো নির্দিষ্ট একটা নামের উপর টার্গেট করে আপনার নেম টি নির্বাচন করুন। আর সব সময় মনে রাখবেন আপনার নির্বাচন কৃত নাম টি যেনো সহজ,ছোট ও অর্থপুর্ন হয় কারন আপনার নির্বাচন করা ডোমেইন নাম টা যদি ছোট আর সহজ হয় তাহলে সবার মনে রাখতে সুবিধা হবে।

এতে করে ভিসিটরদের ভুলা যাবার সম্ভাপনা টা কম থাকে। আর অবশ্যই টার্গেটকৃত ডোমেইন টি একটু ব্রান্ডেবল ও ইন্টারন্যাশনাল টাইপের নেবার চিন্তা করবেন। আর নির্দিষ্ট কোনো বিষয়ের উপরে নিলে তো আর কোনো কথাই নেই।
আপনার মেন নাম যাতে সহজ অথপূণ হয় যাতে সকলে তা মনে রাখতে পারে সহজে বিজিট করতে পারে।খেয়াল রাখবেন যাতে আপনার ডোমেন নাম বড় না হয়ে যায় ছোট অথপূন নাম নেওয়ার চেস্টা করবেন।

আজজে আশা করি আপনারা টপিক টা বুঝতে পারছেন,এটা কি আর কেনই বা প্রয়োজন ও কোথায় কিভাবে পাওয়া যায় এ ব্যাপারে মোটামুটি জানতে পারলেন।

লেখার মাঝে ভুল ভ্রান্তি থাকতে পারে তাই ভুল থাকলে প্লিজ ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন আর আমাদের কমেন্ট করে যানাবেন আর এই টিউওনটির কোথাও কিছু না বুঝে থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করবেন।

আমাদের টিউনগুলো যদি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের ইচ্ছেঘুড়ি ব্লগের সাথে থাকবেন, আর আমাদের পরবর্তি আপডেট গুলো পাবার জন্য অবশ্যই আমাদের সাথে থাকবেন আর পাশাপাশি আমাদের ফেসবুক পেজটিতে একটি লাইক দিয়ে রাখবেন যাতে ফেসবুকে ও আপনি আমাদের আপডেট গুলো পেয়ে যান

1 Comment

1 Comment

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    To Top